Sunday, November 13, 2016

পিসিপির কেন্দ্রীয় তিন নেতার মুক্তির দাবিতে চট্টগ্রামে সংহতি সমাবেশ

সিএইচটি নিউজ ডটকম, নভেম্বর ১৩, ২০১৬, রবিবার

চট্টগ্রাম : ব্রাহ্মনবাড়িয়ার নাসির নগরে হিন্দু বাড়ি ঘরে অগ্নিসংযোগ, লুটপাট ও গাইবান্ধায় গোবিন্দগঞ্জে সান্তাল সম্প্রদায়ের উপর হামলা হত্যার বিচার চাই এই দাবি সম্বলিত শ্লোগানে পিসিপির কেন্দ্রীয় নেতা বিপুল চাকমা, বিনয়ন চাকমা ও অনিল চাকমার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে চট্টগ্রামে সংহতি সমাবেশ করেছে বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ চট্টগ্রাম মহানগর শাখা ও বিশ্ববিদ্যালয় শাখা।
রবিবার (১৩ নভেম্বর) চেরাগী পাহাড় মোড়ে অনুষ্ঠিত সংহতি সমাবেশে পিসিপির নগর শাখার সাধারণ সম্পাদক জিকো চাকমার সভাপতিত্বে ও চবি শাখার অর্থ সম্পাদক সুনিল চাকমার সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের চবি শাখার তথ্য ও প্রচার সম্পাদক রূপন চাকমা, বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের (উমর) নগরের তথ্য ও প্রচার সম্পাদক কাজী আরমান, ছাত্র ফেডারেশনের (সাকি) নগর শাখার সভাপতি শওকত আলী, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফন্টের পার্থ প্রতিম নন্দী, গণসংহতি আন্দোলনে নগরের সমন্বয়ক হাসান মারুফ রুমি, প্রগতিশীল ফোরামের সমন্বয়ক সুশান্ত বড়ুয়া, জাতীয় মুক্তি কাউন্সিলের পূর্ব-০৩ অঞ্চলের সদস্য সচিব এড. আমির আব্বাস। এছাড়া সমাবেশে সংহতি জানিয়েছেন প্রগতিশীল মারমা ছাত্র সমাজের উজ্জ্বল মারমা, গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক থুইক্যসিং মারমা। সমাবেশে নগরের বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

বক্তারা বলেন, এই ফ্যাসিবাদী সরকারের উন্নয়নই যেন সবকিছু, গণতন্ত্র, মানবাধিকার যেন কোন প্রয়োজন নেই। পাবর্ত্য চট্টগ্রামে দমন-পীড়ন, নির্যাতন চালিয়ে পাহাড়িদের ন্যায্য অধিকার থেকে সরানো যাবে না বলে বক্তারা মন্তব্য করেন।

বক্তারা আরো বলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া নাসির নগরে হামলা ছিল পূর্ব পরিকল্পিত। যারা হামলার সাথে জড়িত তাদেরকে দ্রুত গ্রেপ্তার করে আইনের কাঠগড়ায় এনে শাস্তি দিতে হবে। গোবিন্দগঞ্জে সান্তাল সম্প্রদায়ের উপর হামলা ও হত্যার সাথে জড়িতদেরও শাস্তির আওতায় আনতে হবে।

সমাবেশ থেকে বক্তারা অবিলম্বে পিসিপির কেন্দ্রীয় নেতা বিপুল চাকমা, বিনয়ন চাকমা ও অনিল চাকমাসহ আটক সকল নেতাকর্মীদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানান।

সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল চেরাগী পাহাড় মোড় হতে শুরু হয়ে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে এসে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মধ্য দিয়ে শেষ হয়।
---------------------

No comments: