Monday, October 11, 2021

সিন্দুকছড়ির গড়িয়াছড়ি সেনাক্যাম্প এলাকায় ক্ষেত ও বাগান কেটে দেয়ার প্রতিবাদে মানববন্ধন

গুইমারা প্রতিনিধি ।। খাগড়াছড়ির গুইমারা উপজেলাধীন সিন্দুকছড়ি ইউনিয়নের গড়িয়াছড়ি (গড়াইছড়ি) সেনা ক্যাম্পের সেনা সদস্যদের কর্তৃক সেনাপ্রধানের সফরের অজুহাতে ক্যাম্পের পার্শ্ববর্তী এলাকায় চার পাহাড়ি গ্রামবাসীর কচু ক্ষেত, হলুদ ক্ষেত, কলাগাছ ও সেগুন গাছ কেটে দেয়ার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছেন সিন্দুকছড়ি বাজার পাড়া এলাকাবাসী।

আজ সোমবার (১১ অক্টোবর ২০২১) বিকালে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে তারা ‌‘গড়িয়াছড়ি সেনা ক্যাম্প তুলে নাও, গড়িয়াছড়ি ক্যাম্প কমাণ্ডারের শাস্তি চাই, কচু ক্ষেত ও বাগান নষ্ট করে দেয়ার ক্ষতিপূরণ চাই, সিন্দুকছড়িতে ভূমি বেদখল বন্ধ কর’ ইত্যাদি দাবি লেখা প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করেন।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন এলাকার সচেতন ছাত্র অংহ্লাচিং মারমা ও সচেতন যুবক মিঠুন চাকমা।

বক্তারা বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে পাহাড়িদের ওপর জুলুম-নিপীড়নের কোন সীমা নেই। সেনা প্রধানের সফরের অজুহাতে গড়িয়াছড়ি ক্যাম্প এলাকায় যেভাবে পাহাড়ি গ্রামবাসীদের ক্ষেত ও ফলজ-বনজ বাগান কেটে দেয়া হচ্ছে তা পুরোপুরি অন্যায়। এটা পাহাড়িদের ওপর নিষ্ঠুর আচরণের বহি:প্রকাশ বলে বক্তারা মন্তব্য করেন।

বক্তারা আরো বলেন, গড়িয়াছড়ি সেনাক্যাম্পটিও পাহাড়ি জায়গা মালিকদেরকে জোরপূর্বক উচ্ছেদ করেই স্থাপন করা হয়েছে। আর এভাবেই পাহাড়িদের জায়গা-জমি প্রতিনিয়ত কেড়ে নেওয়ার প্রক্রিয়া পাহাড়ে চলমান রয়েছে।

বক্তারা অবিলম্বে ক্ষতিগ্রস্তদের যথাযথ ক্ষতিপূরণ প্রদান ও ভবিষ্যতে যাতে কারোর ক্ষেত, বাগান ক্ষতিগ্রস্ত করা না হয় তার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করতে সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান।

উল্লেখ্য, সেনা প্রধানের সফরের অজুহাতে গত এক সপ্তাহ ধরে গড়িয়াছড়ি (গড়াইছড়ি) সেনাক্যাম্পে নিয়োজিত সেনা সদস্যরা ক্যাম্পের পার্শ্ববর্তী এলাকায় মংহ্লাসু মারমা, কংচাই মারমা, অংথোয়াইগ্য মারমা ও থোয়াইগ্য মারমার কচু ক্ষেত, হলুদ ক্ষেত, কলাগাছ ও সেগুন বাগান কেটে দেয়া হচ্ছে অভিযোগ করেছেন ক্ষতিগ্রস্ত গ্রামবাসীরা।

No comments: