Wednesday, June 07, 2017

খাগড়াছড়িতে নারী সমাবেশে বিজিবি-পুলিশের হামলার প্রতিবাদে চট্টগ্রামে তিন সংগঠনের বিক্ষোভ

খাগড়াছড়ি : কল্পনা চাকমা’র অপহরণকারীদের গ্রেপ্তারের দাবিতে খাগড়াছড়িতে হিল উইমেন্স ফেডারেশন (এইচডব্লিউএফ)-এর উদ্যোগে আয়োজিত শান্তিপূর্ণ মিছিল ও নারী সমাবেশে বিজিবি-পুলিশের হামলা ও ২৫ জনকে গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে ও আটককৃতদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে চট্টগ্রামে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে হিল উইমেন্স ফেডারেশন, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ ও গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম।

আজ বুধবার (৭ জুন) বিকাল সাড়ে ৪টার সময় নগরীর নন্দন কানন ডিসি হিল হতে শুরু হয়ে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে প্রেসক্লাব হয়ে চেরাগী পাহাড় মোড়ে এসে সমাবেশের মধ্য দিয়ে শেষ হয়। এতে যুব নেতা সুকৃতি চাকমার সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন হিল উইমেন্স ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি মিনাকি চাকমা ও পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের চবি শাখার সাধারণ সম্পাদক রূপন চাকমা। এছাড়া সমাবেশে আরো উপস্থিত ছিলেন গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক থুইক্যচিং মারমা।
বক্তারা বলেন, কল্পনা চাকমার চিহ্নিত অপহরণকারীদের গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবিতে আজ সকালে খাগড়াছড়ি সদরের স্বনির্ভর বাজারে হিল উইমেন্স ফেডারেশনের আয়োজিত শান্তিপূর্ণ মিছিল ও নারীসমাবেশে বিজিবি ও পুলিশ লাঠিসোটা নিয়ে অতর্কিত বর্বর হামলা চালিয়েছে। হামলার সময় নারীদের সাথে অসভ্য আচরণ করা হয়েছে। পুরুষ পুলিশ ও বিজিবি সদস্যরাই নারীদের হেনস্থা করেছে। এতে অনেক নারী আহত হয়েছেন এবং ২৫ জন নারী কর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
বক্তারা এই হামলার ঘটনাকে ন্যাক্কারজনক আখ্যায়িত করে বলেন, পাবর্ত্য চট্টগ্রামের পরিস্থিতি দিন দিন খারাপের দিকে যাচ্ছে। গণতান্ত্রিক মিছিল মিটিং’র উপর এ ধরনের বর্বর হামলা দেশের জন্য বড়ই লজ্জার।
পাবর্ত্য চট্টগ্রামে নারীরা আজ কোথাও নিরাপদ নয় উল্লেখ করে বক্তারা বলেন, মাঠে ঘাটে স্কুল কলেজে মিটিং মিছিল, সভা-সমাবেশেও তাদের নিরাপত্তা নেই। আজকে পুলিশ ও বিজিবি সদস্যরা নারীদের সাথে যে আচরণ করেছে তা সভ্য দেশে কল্পনাও করা যায় না।
সমাবেশে বক্তারা এই হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, হামলাকারী পুলিশ ও বিজিবি সদস্যদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ ও অবিলম্বে আটককৃতদের নিঃশর্ত মুক্তির দিতে হবে।
——————-


No comments: